কৃষকের অ্যাপে ৬৪ উপজেলায় ধান বিক্রি

কৃষকের সময়, খরচ ও হয়রানি কমাতে সরকার কৃষকের অ্যাপ চালু করেছে। দেশের ৬৪ উপজেলায় এ বছর একই প্রক্রিয়ায় ‘কৃষকের অ্যাপ’-এর মাধ্যমে বোরো সংগ্রহ করবে সরকার।

এর আগে অ্যাপের মাধ্যমে ১৬টি উপজেলার কৃষকদের কাছ থেকে আমন ধান সংগ্রহে সফলতা আসায় এবার সব জেলায় এ প্রক্রিয়া চালু করার কথা জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। ১১ মার্চ বুধবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে খাদ্যমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে খাদ্যমন্ত্রী জানান, অ্যাপের মাধ্যমে প্রকৃত কৃষকরা ধান বিক্রি করতে পারবে, এর মধ্যে কোনো মধ্যস্বত্বভোগী আসতে পারবে না। অ্যাপের মাধ্যমে এ বছর ৬ লাখ ২৬ হাজার ৯৯১ টন আমন ধান, ৩ লাখ ৩৭ হাজার ৬১৮ টন সিদ্ধ চাল এবং ৪৩ হাজার ৯০০ টন আতপ আমন চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা সরকারের।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) তৈরি করা কৃষকের অ্যাপে ধান বিক্রির প্রক্রিয়া-

* প্রথমত ধান বিক্রি করতে আগ্রহী কৃষককে স্মার্টফোনে ‘কৃষকের অ্যাপ’ নামের অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। (স্মার্টফোন না থাকলে নিকটস্থ ইউনিয়ন তথ্যসেবা কেন্দ্রে গিয়েও এ সেবা নেয়া যাবে)। * তার পর জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ও মোবাইল নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

* নিবন্ধনের দিন থেকেই কৃষক ধান বিক্রির আবেদন করতে পারবেন। * নিবন্ধন হয়ে গেলে ধানের নাম (যেমন : আমন, বোরো), জমির পরিমাণ, ধানের পরিমাণ ইত্যাদি উল্লেখ করে ওই অ্যাপের মাধ্যমে আবেদন করবেন কৃষক।

* এরপর নিবন্ধন, এসএমএসের মাধ্যমে কৃষককে বরাদ্দের আদেশ ও দাম পরিশোধের সনদসহ তথ্য এবং ধান বিক্রির জন্য কবে কোন গুদামে যেতে হবে- এসব তথ্য জানিয়ে দেয়া হবে।

এ ছাড়া অ্যাপটির মাধ্যমে কৃষক তার মতামত বা অভিযোগ জানাতে পারবেন। অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা অ্যাপটি গুগোল প্লে স্টর থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন।