করোনা চিকিৎসায় ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবা চালুর আহবান

বর্তমান স্বাস্থ্য সংকট মোকাবেলায় ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবা চালুর আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন। রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ এ আহ্বান জানান।

মহিউদ্দীন আহমেদ বলেন, জনসংখ্যা অনুপাতে দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা পূর্ব থেকে অপ্রতুল। বর্তমানে করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকটে জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে পড়েছে। বর্তমানে হাসপাতালগুলোতে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে ১০ গুণ বেশি রোগী আসছে।

হোম কোয়ারেন্টিন বা আইসোলেশনে থাকা রোগীরা ডাক্তারের পরামর্শ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে বর্তমান সময়ে জ্বর, ঠাণ্ডা, কাশি ও ডায়রিয়া স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় হলেও করোনায় এ সকল লক্ষণ থাকায় রোগীরা আতঙ্কিত হচ্ছেন এবং হাসপাতালে ভিড় জমাচ্ছেন।

তিনি বলেন, ইতিমধ্যে অনেক ডাক্তার বাইরে প্র্যাকটিস বন্ধ করে দিয়েছেন। অনেক ডাক্তার করোনা থেকে বাঁচার সরঞ্জামের অভাবে নিজেরাই আতঙ্কে আছেন। পর্যাপ্ত কিটের অভাবে সবাইকে টেস্ট করা সম্ভব হচ্ছে না। এ সকল সমস্যার সমাধান হতে পারে প্রযুক্তি ভিত্তিক টেলিমেডিসিন সেবা।

মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বলেন, আমাদের দেশে মোবাইল অপারেটরদের বিভিন্ন নামে টেলিমেডিসিন সেবা রয়েছে। তবে তা ব্যয়বহুল এবং অনেকের ধারণা ডাক্তার না হয়েও হয়তো বা অনেকেই টেলিমেডিসিনে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। আমরা করোনার আবির্ভাবের পরপরই বিটিআরসিকে অনুরোধ করেছিলাম সংকট মোকাবেলায় অপারেটরদের নিয়ে প্রযুক্তির সর্বোচ্চ সেবা ও জনগণের পাশে দাঁড়ানোর জন্য। কিন্তু আজ পর্যন্ত কোন অপারেটর বা কমিশন নাগরিকদের সংকটে সেভাবে পাশে দাঁড়ায়নি।

তিনি বলেন, আমরা সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি, করোনার হুমকি মোকাবেলায় করোনা বিষয়ক বিশেষ ফ্রি টেলিমেডিসিন সেবা চালু করা হোক। যাতে জনগণ বাসায় বসেও করোনা বিষয়ে বিভিন্ন পরামর্শ পেতে পারেন। এতে কিছুটা হলেও আতঙ্ক হ্রাস পাবে বলে আমরা মনে করি।